ভারতবর্ষের পর আমেরিকাতেও কি নিষিদ্ধ হতে চলেছে TikTok?


    Images may be subject to copyright

সোশাল মিডিয়ায় জগতে যে কয়েকটি জনপ্রিয় অ্যাপ আছে তারমধ্যে অন্যতম একটি অ্যাপ হল TikTok, জনপ্রিয়তার গ্রাফটা যদি লক্ষ করা হয় তাহালে এর অবস্থান দেখাযাবে একে বারে ওপরের দিকে। অল্প কিছুদিন আগেই ভারত সরকার  "জাতীয় স্বার্থ সুরক্ষা রক্ষা"   জনিত কারনে TikTok সহ বেশকিছু অ্যাপকে ভারতবর্ষ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। এবার কি তাহলে আমেরিকাও ঐ পথে হাঁটতে চলেছে। সম্প্রতি একটি সাংবাদিক সম্মলনে ট্রাম্প জানিয়াছেন আমেরিকা থেকে TikTok ব্যান হতে চলেছে, তিনিও ঐ একিই অভিযোগ করেছেন যে TikTok-এর মত অ্যাপকে সামনে রেখে আমেরিকার অপর নজরদারি চালাতে চাইছে চিন। যদিও TikTok কোম্পানি এই অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন তারা জানিয়েছেন যে TikTok একটি সম্পূর্ণ স্বাধীন সংস্থা।

Images may be subject to copyright

    ভারতের মত আমেরিকাতেও সমান জনপ্রিয় অ্যাপ TikTok-এর ভবিষ্যৎ এখন প্রশ্ন চিনহ্নের মুখে। আমেরিকান কোম্পানি মাইক্রোসফট, TikTok-এর সংস্থা বাইটড্যান্স কে কিনে নেওয়ার আগ্রহ দেখানো ও Tiktok, মাইক্রোসফেটের  যুগলবন্দী হওয়ার ইচ্ছাকেও হোয়াইট হউস খুব একটা ভালো চোখে দেখছে না। হোয়াইট হউস TikTok-কে নিষিদ্ধ করার কারন হিসাবে দেখাতে চাইছেন যে চিনা আইন অনুযায়ী চীনা সরকার চাইলে যকোনো রকম তথ্য যে কোন চিনা কোম্পানি দিতে বাধ্য, এর ফলে অন্যান্য দেশের জাতীয় নিরাপত্তা প্রশ্নের মুখে পড়েছে। তবে নজরদারির এই অভিযোগ টিকটক-এর সিইও এবং বাইটড্যান্সের সিওও কেভিন মায়ের সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন, তিনি বলেছেন তারা কোন দেশের বা সমাজের শত্রু নয় তাদের উদ্দেশ্য শুধু মানুষকে আনন্দ দেওয়া কোন রকম ক্ষতিসাধন করা তাদের উদ্দেশ্য নয়।

Post a Comment

0 Comments