Moto E7 Plus| দুর্দান্ত সব ফিচার নিয়ে মার্কেটে কাঁপাতে আসছে Moto E7 Plus


Images may be subject to copyright 

কিছু দিন আগেই  Geekbench-এ Moto E7 plus-কে দেখা গেয়াছিল এবার জনপ্রিয় Tipster Evan Blass, Moto E7 Plus-এর কিছু ছবি ও ফিচার টুইটারে শেয়ার করেন, আর সেখান থেকেই আমরা জানতে পারি যে ৪ জিবি র‌্যাম, কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৫০ অক্টা কোর প্রসেসর, ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, ৪৮ MP ডুয়েল ক্যামেরা ও ৫০০০ এমএএইচের দমদার ব্যাটারি নিয়ে আসতে চলেছে Moto E7 Plus

Images may be subject to copyright 

মনেকরা হচ্ছে যে এটি Moto E6 Plus-এর উপগ্রেড ভার্সন। এতে ওয়াটারড্রপ নচ ডিসপ্লের সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ যুক্ত ডুয়েল ক্যামেরায় লেজার অটোফোকাস, নাইট ভিসন সাপোর্ট ও রেয়ার সাইড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। Geekbench অনুসারে জানা যায় যে অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর সাথে থাকছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৫০ অক্টা কোর প্রসেসর ও ক্লক স্পিড ১.৮০ হার্টজ। ফোনের নিচের দিকে স্পিকার ও চার্জিং পোর্ট টাইপ সি দেওয়া হতে পারে।  Geekbench-এর পরীক্ষায়  Moto E7 plus সিঙ্গেল কোর টেস্টে ১১৫২ পয়েন্ট ও মাল্টি কোর টেস্টে ৪৩৭৩ পয়েন্ট পেয়েছে।

Images may be subject to copyright 

সিঙ্গেল কোর টেস্টে লক্ষ্য করা হয় যে প্রসেসার তার টাস্কগুলি কতটা দ্রুত সম্পন্ন করতে পারছে, প্রসেসরটি তার টাস্কগুলিকে যত দ্রুত সম্পন্ন করতে সক্ষম হবে তত বেশি গিকবেঞ্চে সিঙ্গেল কোর টেস্টে স্কোর হবে।একইভাবে, সিঙ্গেল কোর প্রসেসরের উপর চালিত ওয়ার্কলোডটিও মাল্টি-কোর প্রসেসরে চালিত হবে।এদের মধ্যে কোন একটি স্কোর কম হওয়া মানেই জানতে হবে ডিভাইসের পারফরম্যান্স ভালো হবে না।

    যদিও Moto E7 Plus-এর স্ন্যাপড্রাগন 460 চিপসেটের রিপোর্টগুলি এর আগেও প্রকাশ পেয়েছিল, এমনকি কিছু রিপোর্টে এটাও দাবি করা হচ্ছে যে ডিভাইসটির পুনরায় রিব্র্যান্ডেড হতে পারে এবং এটিকে Moto G9 Play করা হতে পারে।

    কিন্তু Moto G9 Play-কেও বেশ কয়েক সপ্তাহ আগে Geekbench-এ দেখা গিয়েছিলো আর সেখান থেকে জানা যায় যে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬০০ প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম, ৬.২ ইঞ্চি ডিসপ্লে এবং অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষতম সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ১০ এতে থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে।

Post a Comment

0 Comments